এখনো ভালবাসো ?

এখনো ভালবাসো ?

   – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

এখনো আকাশের বুকে,

লেগে আছে কিছু জল ভরা মেঘ,

অভিমানের মতো.


সব মেঘ উড়িয়ে –

সব চিঠি পুড়িয়ে –

আয়নায় নিজেকে বলো

“এ এক নতুন আমি !”


সত্যি ? 

—–

Advertisements

Analysing Sorrow

Analysing Sorrow

     – Samyamoy Sen Gupta –

Tear drops are water drops,

Dark clouds reside in your heart,

Crying is just …., just taking a walk-

With that one person who is you,

But not totally you …..,

Just a small part of you

Who walks on slowly, in rain,

With an umbrella,

folded.

Always !

—–

আড়াই কাঠা আকাশ 

আড়াই কাঠা আকাশ 

    – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

সারাদিনের রক্ত ঘাম 

আর বেঁচে থাকার লড়াই 

কলের জলে ধুয়ে ফেলে 

আকাশ পানে চাই

আড়াই কাঠার জমির মালিক 

ভাবলিনা একবারো 

মাথার ওপর আড়াই কাঠা 

আকাশখানা তোর-ও !

—-

​পাপ যাদের ছোঁয়নি 

​পাপ যাদের ছোঁয়নি 

   – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

কার সাথে কার দেখা হয় -,

কার সাথে হয় বাড়াবাড়ি, 

কার সাথে ছায়া ছায়া প্রেম 

কার সাথে হয় ছাড়াছাড়ি ,


দৌড়ে গেলি, 

শান্তি পেলি ?

সুখ পেলি কি ? বল ,

যে সুখেতে তোর

মুখ পোড়ালি ,

তার কেমন মরণ ছল ?

যাদের হৃদয় সস্তা দরে 

বিকিয়ে গেলো হাটে 

তাদের শরীর মিলিয়ে গেলো 

পাপ মাখানো খাটে 


সোনার বরন স্নিগ্ধ আলো 

খানিক অসহায়

রোদ  জ্যোত্স্নার আড়াল দিয়ে 

হৃদয় ছুঁয়ে যায়

______

এ পরবাসে

এ পরবাসে 

– সাম্যময় সেন গুপ্ত –

সব মেয়েই জানে, পুরুষের চোখেও দাঁত থাকে, জিব থাকে, ঠোঁট থাকে. অচেনা পুরুষকে তাড়াতাড়ি করে ভাই বলে, দাদা বলে, কাকা বলে….., সম্পর্কের পবিত্রতায় যদি চোখের  দাঁত জিব ঠোঁট ঢাকা থাকে, এই আশায়. ঢাকা থাকে কি ? আদৌ ? পুরুষের চোখেও দাঁত থাকে, জিব থাকে, ঠোঁট থাকে : সেই চোখে চোখ পরলে, বহু যুগের পরাজয়,  চোখ নামায়, মুখ ফেরায়, ওড়না দিয়ে বুক ঢাকে. নারী  জনম আড়ালে বেঁচে থাকা. পোশাকের আড়াল, লজ্জার আড়াল, কথার আড়াল, নিয়মের আড়াল, শাস্ত্রের আড়াল….. আঁতুড় ঘরের সিক্ত শীতল ছায়াঘনো আড়ালের পূর্ণ জীবন.  
——

আর ফিরবো না

আর ফিরবো না

     – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

যারা দরজার কড়া নাড়েনা, ফোন করে না, চিঠি লেখেনা, হোয়াটস অ্যাপ – এস এম এস – ফেসবুকেও ছোঁয়া দেয়না, তারা শুধুই ভাবনায় আসে. ভাবনায় বৃষ্টি হয় আর আমি ঝুপসি গাছের মতো ভিজি, ভাবনায় রোদ ওঠে, গাছের পাতায় হীরে মানিক  ………,  তারা শুধুই ভাবনায় আসে. কোন একদিন, ভাবনায় ডুবে গিয়ে, হাটতে হাটতে অনেক দুর চলে যাবো, আর ফিরবো না. পরিত্যক্ত রেল লাইন, অনেক দুর অবধি দেখা যায়, তারপর ঘাস আর জঙ্গল, আরো দুরে কুয়াশা মাখা আবছা টিলা …….., আর ফিরবো না. কিন্তু মজার ব্যাপারটা হলো, আমার চলে যাওয়াটা কেউ জানতেও পারবেনা, আড়ালে বলবে “উনি একটু অন্যমনষ্ক গোছের “.

_______

প্রেম ছত্রাক ( 48 )

প্রেম ছত্রাক ( 48 )

– সাম্যময় সেন গুপ্ত –

মনের কোন Delete বোতাম নেই তাই পরোতে  পরোতে জমতে থাকে ; অদরকারি কথা, অদরকারি মুখ, অদরকারি ঘটনা, অদরকারি জড়িয়ে ধরা, অদরকারি আদর, অদরকারি চুমু, অদরকারি চলে যাওয়া ও ফিরে আসা. মৃত্যু অবধি এই অদরকারির বোঝা বোয়ে বেড়ানো ! সেই জন্যেই কি মৃত্যুর আরেক নাম মুক্তি ?  এখন তো এমন অবস্থা হয়েছে, অদরকারির ভিড়ে, দরকারি কোন কিছু আর মনে জায়গাই পায়না. মনের কোন Delete বোতাম নেই তাই পরোতে  পরোতে জমতে থাকে ………

প্রেম

প্রেম 

– সাম্যময় সেন গুপ্ত –

প্রেমের বড় তাড়া ছিল 

ফিরে যাবার

তাই 

এক মুহূর্তের আঁচড়ে 

অনন্তকাল দিয়ে গেল


অনন্তকাল ঝিনুকের আঁধারে 

জ্বালা জমাট বাধে –

তবেই না তা মুক্ত হয় !

———–

এখনও

​   এখনও

  -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

এখনও দুপুরগুলো 
তরুণীদের মতই উচ্ছল,
টক আমের বোঁটা ছেঁড়া 
কষ বেয়ে, যৌবনের গরল,
পর্দার আড়ালে 
সরল পাপের আমন্ত্রণ 

এখনও, অনেক চাদরে 
লেগে আছে রক্তাক্ত বিপ্লব,
অনেক জানালায় -
লেগে আছে স্বপ্নের ইস্তাহার 

গোলা পায়ড়ার দুপুর -
নষ্ট  দুপুর,
মিষ্টি দুপুর,
ছাদ-এ জলের ট্যাঙ্কের 
পেছনে ;  অনেক প্রমাণ ...... !

এখনও অনেক পথ বাকি 
তবুও তো চিঠি এলনা -,
আয়নায় চাঁদ ধরা গেলেও 
জ্যোতস্না এলো না  !

-----------