মূল্য আপেক্ষিক 

মূল্য আপেক্ষিক 

    – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

প্রজাপতির কাছে ফুল –

কবিতা নয়,

কবিতা নয় নারি ,

ধর্ষকের কাছে,

একশো পাঁচশোর নোটে, 

বাপুজির হাসি  মূল্যহীন, 

মূল্যহীন হয় দামি শাড়ি 

কুশ্রী  নারির  অঙ্গে,

যদি পৃথিবীতে থাকো শুধুই 

তুমি আর আমি 

আর আমি যদি না হই 

তোমার রূপে মুগ্ধ,

তাহলে তুমি একান্তই সাদামাটা 

যদি পৃথিবীতে থাকো শুধুই 

তুমি আর আমি –

আর তুমি যতটা বোঝাও 

আমি তার সিকিভাগ বুঝি 

তাহলে তুমি একান্তই সাদামাটা 

বোঝা গেলো সুন্দরী  ?

কাজেই, ঝিরিঝিরি বাতাশে 

বাগানের ফুল হয়ে দুলে যাও,

দুলে যাও….., দুলে যাও…..,

ঝরে যাওয়ার আগে !

________

জমেনি আসর

জমেনি আসর

       -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

দুধ সাদা ঘাসে 

                নীল শাড়ি মাখা 

কিশোরী মনে, তরুণী দেহে 

               যুবতীর শুয়ে থাকা 

দরজা জানালা খোলা কল্পনার ঘর 

মধ্য রাতে হানা দেয় চাঁদনী ধোয়া ঝড় 

হায়, ঠুমরি ছিলো, দাদরা ছিলো, 

তবু জমেনি আসর !

আঁতোরের গন্ধ মাখা 

                   রূপের হেয়ালি 

চোখের ওই ঝাড়বাতিতে 

                  আলোর দেয়ালি,

তবলা বায়া সারেঙ্গিতে সবাই বিভোর 

  নিস্তব্ধ প্রতিধ্বনি, সুরের চাদর 

তুমি ছিলে, আমিও ছিলাম, 

তবু জমেনি আসর !

অকারণে লিখে যাওয়া দূর্বোধ্য কবিতা 

মূল্যবান শব্দ নিয়ে আলাপচারিতা 

বোঝা না বোঝার পালা সাঙ্গ হলে পরে 

মধ্য রাতের  নৈরাশ্য মাখা অন্ধকার ঘরে 

উষ্ণ রক্ত মাখা নগ্ন সহবাসে 

অদ্ভূত শান্তি নামে এ পরবাসে.