এখনও

​   এখনও

  -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

এখনও দুপুরগুলো 
তরুণীদের মতই উচ্ছল,
টক আমের বোঁটা ছেঁড়া 
কষ বেয়ে, যৌবনের গরল,
পর্দার আড়ালে 
সরল পাপের আমন্ত্রণ 

এখনও, অনেক চাদরে 
লেগে আছে রক্তাক্ত বিপ্লব,
অনেক জানালায় -
লেগে আছে স্বপ্নের ইস্তাহার 

গোলা পায়ড়ার দুপুর -
নষ্ট  দুপুর,
মিষ্টি দুপুর,
ছাদ-এ জলের ট্যাঙ্কের 
পেছনে ;  অনেক প্রমাণ ...... !

এখনও অনেক পথ বাকি 
তবুও তো চিঠি এলনা -,
আয়নায় চাঁদ ধরা গেলেও 
জ্যোতস্না এলো না  !

-----------

প্রেম ছত্রাক  ( 30 )

প্রেম ছত্রাক  ( 30 )

      -সাম্যময় সেন গুপ্ত-


তোমার প্রিয় সময়টাতে

পরলো মনে তোমার কথা 

হৃদয় বীণায় উঠলো বেজে 

অপার্থিব নিরবতা 

রাতের বুকে মুখটি গুজে 

দিন হারাবে মনের সুখে 

সাঁঝের আবির মাখিয়ে দিলাম 

লজ্জা রাঙ্গা তোমার মুখে 

——–

​কথা দিলাম

কথা দিলাম 

      -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

কথা দিলাম পলাশ রাঙ্গা বন 

                রোজ রাতে করবো জ্বালাতন

কথা দিলাম রোদ মাখা পথ প্রান্তর 

                লিখব চিঠি দুদিন অন্তর

কথা দিলাম ফ্রক্ পরা ছোট্ট মিষ্টি মেয়ে 

                 ঔরস আশায়, থাকবো পথ চেয়ে !

কথা দিলাম অনেক চেনা, 

সব হারিয়ে যাওয়া মুখ 

               নরম স্মৃতিতে, রাখব গভীর দুখ্

রাখবো  তোমায় আমার পাশে 

আমার সাথে সাথে

 কথা দিলাম রাখবো ধরে 

                   বান ভাসির রাতে  !

—————–

প্রথম….. .

প্রথম…..

-সাম্যময় সেন গুপ্ত –
প্রথম চুম্বনে খানিকটা 

বিষ থাকে 

এক অধর থেকে  আর এক অধরে 

যায়, হৃদয় পোড়ায় …………,
সেই পোড়া দাগ, 

সেই হালকা জ্বালা জ্বালা ভাব,

তাও একদিন জুড়ায় —,
তোমার ছাইতে যখন গঙ্গাজল পরে, 

অল্প কিছুটা বাষ্প উঠে  আকাশে মিলায়,

কানা মন শুধু 

আঁধপোড়া নাভির দিকে চেয়ে বলে – 

ভালো তো বেসেছিলাম, বাসিনি বল ? 

পার্থিব গলা শুধু  টেনে টেনে বলে —

“বলো হরি, হরি বোল !”
————-