​পাপ যাদের ছোঁয়নি 

​পাপ যাদের ছোঁয়নি 

   – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

কার সাথে কার দেখা হয় -,

কার সাথে হয় বাড়াবাড়ি, 

কার সাথে ছায়া ছায়া প্রেম 

কার সাথে হয় ছাড়াছাড়ি ,


দৌড়ে গেলি, 

শান্তি পেলি ?

সুখ পেলি কি ? বল ,

যে সুখেতে তোর

মুখ পোড়ালি ,

তার কেমন মরণ ছল ?

যাদের হৃদয় সস্তা দরে 

বিকিয়ে গেলো হাটে 

তাদের শরীর মিলিয়ে গেলো 

পাপ মাখানো খাটে 


সোনার বরন স্নিগ্ধ আলো 

খানিক অসহায়

রোদ  জ্যোত্স্নার আড়াল দিয়ে 

হৃদয় ছুঁয়ে যায়

______

Advertisements

অপ্রেম ডায়রি  ( 3 )

অপ্রেম ডায়রি ( 3 )

     – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

তুমি কি আমায় চেনো ? দেখেছো আগে ?

যদি পৃথিবীর সমস্ত মানুষ একসাথে বলে “না বাপু, তোমায় আমরা চিনিনা কেউ !”, তখন আমি কি করবো ? কেমন করে পালাবো বুকের সেই শূন্য শীতলতার থেকে দুরে ? তাই বলি কি, যারা তোমায় চেনে আর চিনেছে খানিক, তাদের একটু খোঁজ খবর নিও. তারা খুব দামি, তাদের উষ্ণ উপস্থিতি বড় মুল্যবান. আমিও বুঝিনি আগে, নীল আকাশ, পাহাড়, সমুদ্র, ফুলের রাশি …….., এসব তুচ্ছ, হৃদয়হীন. এই পৃথিবীর  সব চেয়ে দামি ওই ধুক পুক করা হৃদয় আর হৃদয়ের উষ্ণতা.

_______

অপ্রেম ডায়েরি (1)

অপ্রেম ডায়েরি (1)

           – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

কাঁচ ভেঙ্গে গেলে খুব সুন্দর করে ঝাঁট দেওয়া যায়. দেখ মেঝেটা এখন একদম পরিষ্কার. কাঁচ ভাঙ্গার আওয়াজ টুকু শুধু কানে লেগে আছে আজও. পরষ্পরের দেখা হলে, ওই পরিষ্কার মেঝেটাই দেখাবো তোমায়. ভাঙ্গা কাঁচ পায়ে ফোটেনি, তাই রক্তপাতও হয়নি. খুব বেঁচে গেছি, বলো ?! শুধু ওই আওয়াজ টুকু …….. .

……………..

প্রথম….. .

প্রথম…..

-সাম্যময় সেন গুপ্ত –
প্রথম চুম্বনে খানিকটা 

বিষ থাকে 

এক অধর থেকে  আর এক অধরে 

যায়, হৃদয় পোড়ায় …………,
সেই পোড়া দাগ, 

সেই হালকা জ্বালা জ্বালা ভাব,

তাও একদিন জুড়ায় —,
তোমার ছাইতে যখন গঙ্গাজল পরে, 

অল্প কিছুটা বাষ্প উঠে  আকাশে মিলায়,

কানা মন শুধু 

আঁধপোড়া নাভির দিকে চেয়ে বলে – 

ভালো তো বেসেছিলাম, বাসিনি বল ? 

পার্থিব গলা শুধু  টেনে টেনে বলে —

“বলো হরি, হরি বোল !”
————-