প্রেম ছত্রাক  ( 24 )

প্রেম ছত্রাক  ( 24 )

    -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

শুকনো পাতায় ভরা জীর্ন ঘর 

চার দেয়ালে চার অধ্যায় টাঙানো পরপর, 

আসিও সংগোপনে

বিছানায় এক ফালি আলাপি রোদ্দুর 

জানালার পর্দায় বাতাসের সুর,

প্রিয়তমা আসিও সংগোপনে 

——

প্রেম ছত্রাক  ( 30 )

প্রেম ছত্রাক  ( 30 )

      -সাম্যময় সেন গুপ্ত-


তোমার প্রিয় সময়টাতে

পরলো মনে তোমার কথা 

হৃদয় বীণায় উঠলো বেজে 

অপার্থিব নিরবতা 

রাতের বুকে মুখটি গুজে 

দিন হারাবে মনের সুখে 

সাঁঝের আবির মাখিয়ে দিলাম 

লজ্জা রাঙ্গা তোমার মুখে 

——–

প্রেম ছত্রাক  ( 9 )

প্রেম ছত্রাক  ( 9 )

 -সাম্যময় সেন গুপ্ত-

জ্যোৎস্নায় স্নানরত হাসনুহানা 

                     আস্তে কথা বল 

মহুয়ায় মাতাল হাওয়া —

               আর সাঁওতালি মাদল

থিরি  থিরি কাঁপে আঁধার

                  ঝিঁঝিঁর তালে তালে

এদিক ওদিক খুজছি তোকে 

                   পথ হারাবো বলে !

—————

প্রেম ছত্রাক ( 16 )

প্রেম ছত্রাক ( 16 )

   – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

কি চাও আমার কাছে ?
মুঠো মুঠো জোনাকি ?
নাকি এক রাশ শিউলি ?
অথবা …….
খানিকটা আগুন, রঙ্গীন মোড়কে  ?

কিছু চেও প্রিয়তমা 
তুষার পাতের আগে,
আমারো যে ধন্য হতে 
ভাল লাগে, বড় ভাল লাগে !
………….

আমি পালিয়ে বেড়াই

আমি পালিয়ে বেড়াই 
       – সাম্যময় সেন গুপ্ত –

আমি পালিয়ে বেড়াই ভাবনাগুলোকে 
প্রশ্রয় না দিয়ে 
আমি পালিয়ে বেড়াই ভাবনাগুলোকে 
আমার সাথে নিয়ে

মাথা ঝাঁকিয়ে ঝাঁকিয়ে ফেলতে যে চাই 
দুরন্ত চিন্তাগুলো 
মাথা জুড়ে ভিড় করেছে তোমার 
টুকরো স্মৃতিগুলো 
আমি পালিয়ে বেড়াই, পালিয়ে এড়াই 
বাঁচার  ইচ্ছেটাকে 
আমার ইচ্ছেগুলো জড়িয়ে আছে 
তোমার দেহটাকে 
আমি হাটতে হাটতে, হাটতে হাটতে
ক্লান্ত হতে চাই 
ক্লান্ত হয়ে, ভাবনা পেরিয়ে 
ঘুমের দেশে যাই 
সপ্নে দেখি ভোর এসেছে 
আলতো আলতা পায়ে 
তোমার মতই হাসছে সে ভোর 
কুয়াশা শাড়ি গায়ে 
আমি পালিয়ে বেড়াই, পালিয়ে হারাই 
আমার বেঁচে থাকার কারন 
দেখি সামনে তুমি দাড়িয়ে আছো 
তোমার কাছে যাওয়া বারণ 
আমি তোমার বাড়ি যেতে গিয়ে 
আমার বাড়ি যাই 
আমি আমার বাড়ি খুঁজতে গিয়ে 
ঠিকানা হারাই 
আমি ভোরের সাথে ঝগড়া করে 
রাতের কাছে যাই 
আবার মধ্য রাতে একলা আমি 
ভোরের সঙ্গ চাই

আমি পালাতে পালাতে হারাতে হারাতে 
ক্লান্ত হয়ে গেছি 
তোমার দরজা খুলে দেখো, আমি 
আর একবার এসেছি 

………….